কর্পোরেট জগতে ১০,০০০ ঘন্টা


 "কর্পোরেট জগতে ১০,০০০ ঘন্টা"

নামঃ ফারজানা আলম পিয়া,  

৭ম ব্যাচ 


আমাদের মাঝে অনেকেই, কোনো না কোনো প্রতিষ্ঠানে সঙ্গে জড়িত। হয়তো'বা চাকুরি কিংবা স্বেচ্ছাশ্রম। যখন আমরা কোন প্রতিষ্ঠানের হয়ে কোনো কাজ করি --  তখন আমাদের মাঝে প্রায়ই একটা ভাবনা আসে যে, আমি কি কাজটা আমি নিজের জন্য, ব্যাক্তিগত স্বার্থে করছি? নাকি প্রতিষ্ঠান জন্য, প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে করছি?  এবং অনেক সময়ই উত্তরটা এসে দাঁড়ায় -- প্রতিষ্ঠানের জন্য এতোকিছু করে কি লাভ?  আমি বরং ব্যাক্তি স্বার্থে যেইটুকু করা প্রয়োজন, সেইটুকু নিয়েই কাজ করি। আজকে এই বিষয়টা নিয়ে একটু কথা বলি।  


মনে করুন, আপনি খুব ডায়নামিক একজন মানুষ।  সম্প্রতি একটা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্ত হয়েছেন, এবং প্রতিমাসে একটা হ্যান্ডসাম স্যালারি পান।  আপনি ভাবতে থাকলেন -- আমার তো একটা ফার্স্ট ক্লাস ডেসিগনেশন,  হ্যান্ডসাম স্যালারি, সুন্দর অফিসরুম আছেই। আমি রোজ ৯ টায় অফিসে আসবো,  ৫ টায় চলে যাব। আর ব্যাক্তিস্বার্থে, অর্থাৎ পরবর্তী প্রমোশনের জন্য ঠিক যেইটুকু কাজ করা প্রয়োজন, সেইটুকুই কাজ করবো...  এইভাবে, ৬ মাস চললো। আপনি রোজ ৯ টায় অফিসে আসেন,  ৫টায় চলে যান। আর অফিসে ঠিক যেইটুকু কাজ করা প্রয়োজন, নাম-মাত্র সেইটুকুই কাজ করেন। চাকুরীর নিয়োগ লিখিত দায়িত্বগুলোর বাইরে, আপনি আর কোনো কাজই স্পর্শ করেন না... 


৬ মাস পর, কোনো একটি কর্পোরেট সেমিনারে আপনি গেলেন। সেখানে আপনি দেখলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আপনার সম-পদমর্যাদার অনেকেই আপনার আশেপাশে অবস্থান করছেন। কিন্তু, সেদিন তাদের সাথে আপনি নিজের একটা পার্থক্য উপলব্ধি করতে পারবেন৷ পার্থক্যটা পোশাকের নয়, অবস্থানের নয়, পদমর্যাদার নয়৷ পার্থক্যটা জ্ঞানের, পার্থক্যটা দক্ষতার। 


কর্পোরেট জগতে "দশ হাজার ঘন্টা" নামক একটি সূত্র আছে। এই সূত্র অনুযায়ী -- কোনো বিষয়ে দক্ষ হতে হলে, সেই বিষয় নিয়ে ১০,০০০ ঘন্টা সময় অতিবাহিত করতে হয়। অর্থাৎ সেই বিষয় নিয়ে ১০,০০০ ঘন্টা সতস্ফূর্তভাবে রিসার্চ করা,  জ্ঞান অর্জন করা, প্র্যাকটিস করা, গ্রুপ ওয়ার্ক করা প্রভৃতি।  


আপনি যেহেতু,  রোজ ৯টা-৫টা, অফিসে  যেইটুকু কাজ করা প্রয়োজন ঠিক সেইটুকুই কাজ করেন,  তাই বলা যায় আপনার কাজের বিষয়ে দক্ষ হবার জন্য আপনি ১০,০০০ ঘন্টা সময় অতিবাহিত করেন নি। অন্যদিকে ঐ কর্পোরেট সেমিনারে উপস্থিত, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আপনার সম-পদমর্যাদার 

ব্যাক্তিরা নিজ নিজ কাজ নিয়ে দক্ষ হবার জন্য, ১০,০০০ ঘন্টার চেয়েও বেশি সময় অতিবাহিত করেছেন৷ তাই আজকে তাদের আর আপনার মাঝে এই জ্ঞানের পার্থক্য, দক্ষতার পার্থক্য। তাই আজ কর্মজীবন নিয়ে বলার মতোন তাদের অনেক গল্প,  অনেক অভিজ্ঞতা আছে। কিন্তু আপনার অভিজ্ঞতার খাতা শূণ্যেই স্থির।


অনিশ্চিত এ জীবনে --  প্রতিষ্ঠান, পদবী কোনো কিছুই স্থায়ী নয়। স্থায়ী আমাদের জ্ঞান, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা। তাই কাজ করুন কোনো প্রতিষ্ঠান কিংবা পদবীর জন্য নয়। বরং কাজ করুন নিজের জ্ঞান, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা বৃদ্ধির জন্য।  

No comments

ভালোবাসি কি বলতেই হবে?

 ভালোবাসি কি বলতেই হবে? -মহিমা মাঝরাতে রাস্তায় হাঁটবো; কোনো এক নিয়ন-আলোতে ভালোবাসা কুড়াতে... আমাদের দিগন্তটা কোথায় হবে? জোস্নায় শেষ হবে তোহ?...

Theme images by konradlew. Powered by Blogger.